গুজব-অপব্যাখ্যা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে : শেখ শামসুদ্দিন

সময়: Sunday, May 29th, 2022 4:19:18 pm

নিউজবিজ্ প্রতিবেদক : বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কমিশনার ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ বলেছেন, কোভিড এবং যুদ্ধসহ বিভিন্ন কারণে বিশ্বব্যাপী জ্বালানিসহ বিভিন্ন পণ্যের দাম বেড়েছে। এটা নিয়ে গুজব বা অপব্যাখ্যাও হচ্ছে। এই গুজব এবং অপব্যাখ্যা আমাদের নিয়ন্ত্রণ করতে হবে এবং তথ্যের অপব্যাখ্যা রোধ করতে হবে।

রোববার (২৯ মে) বিএসইসির মাল্টিপারপাস হল রুমে বাংলাদেশ একাডেমি ফর সিকিউরিটিজ মার্কেটস আয়োজিত ‘বর্তমান বৈশ্বিক অর্থনীতির প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।

বিএসইসির এই কমিশনার বলেন, শ্রীলঙ্কার রিজার্ভ হচ্ছে এখন লেস দেন ২ মিলিয়ন ডলার, পাকিস্তানের হচ্ছে ১০ বিলিয়ন ডলার আর বাংলাদেশের হচ্ছে ৪২ বিলিয়ন ডলার। পাকিস্তানের ১০ বিলিয়ন ডলার, যা ২০১০ সালে আমাদের ছিল। তাহলে আমরা পাকিস্তানের দিকে যাচ্ছি না আমাদের দিকে আসছি। এটা আমাদের ভাবতে হবে। আমরা কিভাবে একটা ব্যর্থ রাষ্ট্রের সাথে নিজেদের কল্পনা করি। সেগুলোর সাথে আমরা নিজেদের জড়ানোর চেষ্টা করি। এই মনমানসিকতাকেই আমাদের বেধে রাখতে হবে। যদি আমরা সেখান থেকে না বেরিয়ে আসি, আমাদের যোগ্যতার প্রতি যদি আমাদের আস্থা না থাকে। তাহলে আমাদের কিন্তু ক্ষতিগ্রস্ত হতে হবে। কাজেই সব ধরণের গুজব বা অপব্যাখ্যা থেকে আমাদের সরে আসতে হবে।

শেখ শামসুদ্দিন বলেন, আমাদের চিন্তা করতে হবে এদেশের উন্নয়নে কিভাবে আমরা সবাই মিলে সংযুক্ত থাকতে পারি। মনে রাখতে হবে যতদিন এদেশে কৃষকরা আছে, যতদিন এদেশের শিল্পায়ন আছে এবং যতদিন বিদেশে আমাদের প্রবাসীরা আছেন, ততদিন এদেশের কোনো কিছুর অভাব হবে না। তাই আমরা আশা করি গুজবতান্ত্রিক কোনো কিছু বা কোনো ধরণের অপব্যাখ্যার মুখোমুখি আমরা যেন না হই।

বিশ্বের বর্তমান অবস্থার কিছুটা পেক্ষাপট পরিবর্তন হয়েছে উল্লেখ করে বিএসইসির এই কমিশনার বলেন, আমাদের দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছিল, দারিদ্রতার হার যখন ১০ শতাংশে নামিয়ে এনেছি, ঠিক তখনই কোভিড শুরু হলো। কোভিডের ক্ষতি আমরা যখন রিকভারি করছি, বিশ্ব এগিয়ে যাচ্ছে তখন যুদ্ধ শুরু হলো। যুদ্ধসহ অনেক কারণে বাংলাদেশ প্রভাবিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, কোভিড বা যুদ্ধসহ বিভিন্ন ক্ষতি থেকে দেশকে কিছুটা হলেও স্বস্তি দিতে পারে আমাদের ক্যাপিটাল মার্কেট। দেশের অর্থনীতিতে ক্যাপিটাল মার্কেট ভূমিকা রাখতে পারে।

নিউজটি ১৫১ বার পড়া হয়েছে ।